Manasi Ganguli

Abstract Others


4.4  

Manasi Ganguli

Abstract Others


ফাগুনে_আসিল_প্রেম

ফাগুনে_আসিল_প্রেম

3 mins 266 3 mins 266


                  


     আজও মিতার মনে আছে দিনটার কথা,সেদিন ছিল 1st March. একটা কোকিল তারস্বরে কু-কু করে চিৎকার করছিল,বুঝি কাউকে খুঁজছিল ও। ঠিক তাই,কিছু পরে অন্য একটি কুহুস্বর শোনা গেল অন্য গাছ থেকে। এরপর একবার এ ডাকে,একবার ও। সেদিন ছিল ওর অফিসে প্রথম দিন,পৌঁছে গেছে সময়ের আগেই। অপেক্ষা করতে করতে ও বেশ উপভোগ করছে ব্যাপারটা। এমন সময় সুমন হাজির,ওকে দেখেই একগাল হাসি,এগিয়ে এসে হাত মেলায়। তার মানে মিতা আর সুমনই কেবল চান্স পেয়েছে। পরিচয় ছিল না আগে, ইন্টারভিউয়ের দিন দেখেছিল কেবল। সেদিন কি আর আলাপ করার মত অবস্থা ছিল! সবাই চুপচাপই বসে ছিল। দু'জনকে নেবে আর তার জন্য এসেছিল প্রায় শ'খানেক ছেলেমেয়ে। সবারই তখন বুকের ভেতর ঢিবঢিব,সবাই সবার প্রতিদ্বন্দ্বী। সময়মত ডাক এলে ইন্টারভিউ দিয়ে বাড়ী চলে গিয়েছিল সেদিন। ভালই হয়েছিল ইন্টারভিউ তবু মনে ছিল সংশয়,ওর থেকে ভাল তো কেউ দিতেই পারে,তাই যেদিন পোস্টে অ্যাপয়েন্টমেন্ট লেটার পেল,আনন্দে ওর চোখে জল এসে গিয়েছিল।


     প্রথমদিন থেকেই সুমনের সঙ্গে মিতার বন্ধুত্ব হল সহকর্মী হবার আগেই। একসাথেই রোজ অফিসে ঢোকে,বেরোয়। একজন কোনো কাজে আটকালে আরেকজন অপেক্ষা করে,অফিসের পর কারো কিছু কেনাকাটা থাকলেও একই সঙ্গে দু'জনে মার্কেটে যায়। প্রায় একবছর হল ওদের বন্ধুত্বের,যেটা এখন ঘনিষ্ঠ,বেশ গাঢ়। এ নিয়ে অফিসে একটু ফিসফাসও আছে। Week-endএ মাঝে মাঝে দু'জনে একসাথে সিনেমা,রেস্টুরেন্ট, গঙ্গার ধারে যায়। দু'জনেরই ভাল লাগে,যদিও প্রথাগত ভাবে ওরা কেউ কাউকে প্রেম নিবেদন করে নি,তবে এই ভ্যালেন্টাইন'স ডে তে সকালে ঘুম ভেঙ্গে উঠে,দু'জনে দু'জনকে Whatsappএ উইশ করেছে,অফিস শেষে একসাথে ডিনার করে বাড়ী ফেরার সময় ফুলের দোকান থেকে একটা লাল গোলাপ কিনে সুমন ওর হাতে দিয়ে একগাল হেসেছে।


     এ পর্যন্ত ঠিকই ছিল,কিন্তু গত ক'দিন ধরেই মিতার যে কি হয়েছে,শোবার সময় চোখ বুজলেই সুমনের মুখটা ভেসে ওঠে চোখের সামনে। ফাল্গুন মাস,কোথাও বিয়েবাড়ীতে সানাই বাজছে আর মিতা চোখ বুজে সুমনকে দেখছে বর বেশে আর পাশে কনের বেশে দেখছে সে নিজেকেই। এসব সুমন কিছুই জানে না। এর অল্প ক'দিন পর,একদিন রাত প্রায় ১২টা,সুমন মিতাকে ফোন করে বসে,মিতাও তখন সুমনের ভাবনায় বুঁদ। খুব ভাল লাগল ওর,"কি রে কি হল?"বলল মিতা। "ঘুম আসছে না রে,তাই ?"বলল সুমন। এরপর কিছুক্ষণ কথার পর,সুমন হঠাৎ আবদার করে বসে,"আমায় একটা গান শুনিয়ে ঘুম পাড়িয়ে দে না রে মিতা,বেশ একটা রোমান্টিক গান"।


কি যে ভাল লাগল মিতার কিন্তু মুখে বলে,"কি যে পাগলামি করিস"! কিন্তু সুমন আজ নাছোড়,"তোকে শোনাতেই হবে,নাহলে আজ আমি ফোন রাখব না"। মিতা বলে,"ওরে পাগল, রাতদুপুরে বাড়ীতে বাবা-মা কি ভাববে বল তো? তুই বরং You Tubeএ গান শোন"। কিন্তু সুমনকে আজ কিসে পেয়েছে যেন। মিতার ওপর এত জোর,এত অধিকার বোধ! ভাল লাগে মিতার। এমনিতেই সুমনকে প্রেমিক হিসাবে ভাবতে শুরু করে দিয়েছে মিতা আজকাল,তাই মনের মাঝে সুর গুনগুনিয়ে উঠেছিল তার অনেক আগে থেকেই,তবু ধরা দিতে চায় নি সে সহজে।

    সে রাতে মিতাকে গান শোনাতেই হয়েছিল, 'লগ্নজিতার' গাওয়া

"বাতাসে বহিছে প্রেম

-----------------------------

-----------------------------

বসন্ত এসে গেছে"

 সুমন চোখ বুজে বুঁদ হয়ে শুনছিল মিতার দরদী গলার গান। শেষ প্যারাটায় সুমন মিতার সাথে গলা মিলিয়ে গেয়ে উঠল

"এই বসন্তের অনেক জন্ম আগে

 তোমায় প্রথম দেখেছিলাম আমি

 --------------------------------------------

 সেই বসন্ত এখন ভীষণ দামী

 আমার কাছে তোমার কাছে

 বসন্ত এসে গেছে।"

   গান শেষ হলে দুজনে হা হা করে হেসে ওঠে,ফোন রাখার সময় সুমন হঠাৎ বলে,"love you". মিতা চমকে ওঠে,মনের মাঝে তোলপাড়, সারারাত ঘুমাতে পারল না।

    পরদিন অফিসে একঝলক দেখা হবার পর দু'জনেই কাজে ব্যস্ত হয়ে পড়ে,প্রচন্ড চাপ। লাঞ্চ আওয়ারে সুমন মিতাকে বলে,"আজ একটু তাড়াতাড়ি নিস,বাইরে খেয়ে বাড়ী ফিরব"। মিতা কাল রাত থেকে যেন এক ঘোরের মধ্যে রয়েছে,আনমনে বলল,"ঠিক আছে",বলে চুপ করে গেল। সুমনের কিন্তু মুখ চোখ ঝলমল করছে খুশীতে।


     এরপর যা হবার ছিল তাই হল। রেস্টুরেন্টে কেবিনে বসে খাবার অর্ডার করে সুমন মিতার হাত চেপে ধরে,"তোকে ছাড়া বাঁচব না মিতা,না বলিস না।অনেকদিন ধরে নিজেকে সামলাবার চেষ্টা করছি,কিন্তু দেখলাম,তুই আমায় গ্রাস করে বসে আছিস"। মিতা সুমনের চোখে চোখ রাখে,চারচোখের মিলনে সেদিন ছিল খুশীর বান।


Rate this content
Log in

More bengali story from Manasi Ganguli

Similar bengali story from Abstract