Participate in 31 Days : 31 Writing Prompts Season 3 contest and win a chance to get your ebook published
Participate in 31 Days : 31 Writing Prompts Season 3 contest and win a chance to get your ebook published

Indrani Samaddar

Abstract Others


3.5  

Indrani Samaddar

Abstract Others


লকডাউনের ডাইরি (১)

লকডাউনের ডাইরি (১)

2 mins 370 2 mins 370


আজ চেনা রাস্তা অচেনা লাগছে। অন্যান্য দিন জানলা দিয়ে মুখ বাড়ালে অথবা ফ্ল্যাটের ছাদে উঠলে অবিরাম বাইকের অথবা চার চাকার আসা- যাওয়া চলে। আজ রাস্তায় খুব কম যানবাহনের আনাগোনা। মাঝে মাঝে পুলিশের গাড়ি অথবা সশব্দে অ্যাম্বুলেন্সের আওয়াজে বুক কেঁপে উঠছে। এই ঘোর অসময়ে কার বাড়িতে আবার অসুখ হানা দিলো। এমনিতেই সুখ নামক বস্তুটা ‘করোনা’ নামে এক অচেনা ও অজানা ভাইরাস সবার জীবন থেকেই কেড়ে নিয়েছে।

 

অলস সময় এগিয়ে চলেছে। কোনো কাজেই কোনো তাড়া নেই। কারণ আজ থেকে লগডাউন শুরু। সকলে গৃহবন্দী। শুধুমাত্র প্রয়োজনীয় জিনিস যা বাজার থেকে না আনলেই নয় সেটুকু নিয়ে আসতে হবে বাড়ির দৈনন্দিন কাজে যারা সাহায্য করে তাদের ছুটি দেওয়া হয়েছে তাই রান্না করার থেকে কাপড় কাঁচা, ঘরপরিষ্কার করার থেকে যাবতীয় কাজ সামলাতে হচ্ছে। কাজের ফাঁকে টিভির পর্দায় চোখ চলেযাচ্ছে করোনায় ভারতে মৃতের সংখ্যা বাড়ছে। ডালে ফোঁড়ন দিতে গিয়ে রান্নার ঝাঁঝে চোখে জল চলে এলো। রান্নার ঝাঁঝে নাকি বর্তমান পরিস্থিতির কথা ভেবে।


এরকম এক অবস্থা যে আসতে পারে সে কথা এই সেদিনো ভাবতে পারিনি। যখন কেরল বা দিল্লিতে করোনা সংক্রমণ ঘটে। প্রথম যেদিন বোনের কাছে শুনেছিলাম ময়ূরবিহারে এক ভদ্রলকের করোনা সংক্রমণ হওয়ায় সেই ভদ্রলোকের বাচ্চার স্কুল ছুটি দিয়ে দেওয়া হয়েছিল। অবাক হয়েছিলাম। তবে গুগল ঘেটে অনুধাবন করেছিলাম ভয়ের কারণ। যখন দিল্লির আকাশে বাতাসে করোনার আতঙ্ক তখন কল্পনাও করতে পারিনি কলকাতায় কিছুদিনের মধ্যে করোনা আতঙ্ক গ্রাস করবে।


সারদিন বাড়ির কাজ করতে করতে দিন যে কখন শিফট শেষে বাড়ির পথে হাঁটা দিয়েছে আর রাত্রি এসে ডিউটিতে বসেছে এক কাপ চা হাতে টের পাইনি। রাতে খাওয়া দাওয়া শেষে যখন নিজে ক্লান্ত হয়ে বিছানায় এসে বসলাম তখন ভাবি বাড়ির প্রয়োজনীয় কাজ সারতে একটা গোটা দিন চলে গেলও , মনের কনো রসদ মিলল না। আজ সারাদিন না গান শুনলাম, না বই পড়লাম। এমনকি এক লাইন লিখলামও না। প্রথমে একটা গল্পের বই নিয়ে বসি। ঘড়ির কাঁটা এগারোটা ছুঁই ছুঁই। বইয়ের দিকে তাকিয়ে আছি কিন্তু পড়ায় মন নেই। মনের মধ্যে মাকড়সা চিন্তার জাল বুনছে। আমার মেয়েবেলা থেকে আজ অব্ধি কোনদিন এরকম ঘটনা দেখিনি। গোটা ভারতবর্ষের আকাশে ঘোর অন্ধকার। মানুষের শুভ বুদ্ধির আলোকে শুধুমাত্র এই অন্ধকার সরে গিয়ে ঝলমলে রোদ উঠবে।


Rate this content
Log in

More bengali story from Indrani Samaddar

Similar bengali story from Abstract