Rita De

Abstract

2  

Rita De

Abstract

ড. রীতা দে- র কবিতার

ড. রীতা দে- র কবিতার

2 mins
238



            ঝড় , বন্যা বা ভূমিকম্প কখন সংঘটিত হবে সেকথা বিজ্ঞানীরা হাত গুনে বলতে পারেন না ।তারা খুব বেশী হলে বলতে পারেন কোন কোন ভৌগলিক অঞ্চল ঝড় বন্যা প্রবণ অথবা ভূমিকম্প প্রবণ । কেওস থিওরির ( Chaos theory ) দৌলতে আজকের বিজ্ঞানীরা মেনে নিয়েছেন প্রকৃতিকে কার্যকারণ তত্ত্ব দিয়ে ব্যাখ্যা করা যায় না অথবা কারণ অত্যন্ত হাল্কা হলেও তার ফলশ্রুতি কার্য অত্যন্ত ভারী হতে পারে । কলকাতায় একটা প্রজাপতি ডানা ঝাপটালে ক্যালিফোর্নিয়ায় ঝড় উঠবে। অতএব প্রকৃতি অজ্ঞাত এবং অজ্ঞাত । এবং প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের কথা তাই আগে থেকে ভবিষ্যত্ বাণী করা যায় না । একই কথা প্রযোজ্য মানুষের ব্যক্তিগত জীবনে, সামাজিক জীবনে, রাজনৈতিক জীবনে। তাই কখন যে মানুষের বিপর্যয় আসবে তা আগে থেকে হিসেব করা যায় না । যে লোকটা সারা জীবন কৃপণতা করে টাকা জমালো সেই লোকটা মুহূর্তে গরীব হয়ে যেতে পারে । টাকার অবমূল্যায়নে তার জমানো টাকা একশপাউণ্ড ধূলায় পরিণত হতে পারে ।সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা , রাজনৈতিক দাঙ্গা, যুদ্ধ এবং আরো কতো কি মানুষের জীবনে বিপর্যয় আনে । ঝড় ওঠা মানে হাওয়ার মুখে উড়বে টিনের চাল , শেকল ছেঁড়া কয়েদীর মতো আকাশে হুঁঙ্কার করবে, হাজারটা সিংহকে নিয়ে বজ্রনির্ঘোষে মুখ থুবড়ে পড়বে উদ্ধত অট্টালিকা, আর এর ফলশ্রুতি হাহাকার , অভিযোগ এবং ক্রন্দনরোল । কিন্তু রীতা বলেন - এসব তো পলায়নী বৃত্তি, ঝড় উঠলে পালিয়ে যাওয়ার প্রয়াস । রীতা বলেন -  কেন , আমারা ঘুরে দাঁড়াতে পারি না ? ঘুরে দাঁড়ানো মানে প্রকৃতির সঙ্গে মুখোমুখি যুদ্ধ করা । রীতা বলেন  -  ঝড়কে  'ঘুরে দাঁড়িয়ে বলা যায় না , আয় পাঞ্জা লড়ি '।


     প্রকৃতির শক্তি অসীম । বিজ্ঞানের সাধ্য নেই যে তার সঙ্গে যুদ্ধ জিতবে । দুর্ভাগ্যের শক্তি অসীম । গ্রীক সংস্কৃতিতে তাকে নেমেসিস বলে চিহ্নিত করা হয়েছে । নেমেসিসের হাতে মানুষ ক্রীড়ণক মাত্র। যে সমস্ত মানুষ নেমেসিসের বিরুদ্ধে লড়েছে , দুর্ভাগ্যের সঙ্গে পাঞ্জা লড়েছে তারা ট্র্যাজিক হিরো , একজন হ্যামলেট কিম্বা ম্যাকবেথ ।দুর্ভাগ্যের শক্তির কাছে তারা নিঃসেন্দহে পরাস্ত হয়েছে । অর্থাৎ যুদ্ধ করো আর নাই করো প্রকৃতির খেয়ালখুশীর কাছে খেয়ালী অদৃশ্যের সামনে তোমার পরাজয় অথবা ধ্বংস অনিবার্য । কিন্তু রীতা মনে করে - যুদ্ধের ফলাফলটা বড়ো কথা নয়। বাঁচার পদ্ধতিটাই বড়ো ।আমরা একজন হ্যামলেট বা ম্যাকবেথের ভূমিকা পালন করে অনিবার্য ধ্বংসের দিকে ছুটে যাবো । সেখানেই মনুষ্যত্বের জয়পতাকা উড়বে । ঝড় আসুক, আমরা সেখান থেকে ছুটে পালাবো না । মানুষের জীবন ট্র্যাজিক হোক্ কিন্তু মানুষ যেন নিজেকে করুণার পাত্র হিসেবে নিজেকে চিহ্নিত না করে 




Rate this content
Log in

Similar bengali story from Abstract