Pritam Banerjee

Inspirational


5.0  

Pritam Banerjee

Inspirational


বিশুর কারখানা

বিশুর কারখানা

2 mins 364 2 mins 364

কারখানা আছে বিশুর একটা - বিশু স্বপ্ন তৈরী করে,

হাসির সাথে খুশি মিশিয়ে বোতলে বোতলে ভরে,

তারপর তাতে মনের ইচ্ছে বেশটি করে মিশিয়ে-

ভালোবাসার মোড়কে পাকায়

আর চোখে চোখে বিলি করে।


খদ্দের অবিশ্যি সবই ক্ষুদে তার - ইচ্ছেও তাদের ভিন্ন,

তাই কাজও করতে হয় খুবই মেপেবুঝে - গ্রাহক না হয় ক্ষুন্ন!

কেউ খুশি হয় পুতুল খেলায় - কেউ বা বাঘের পিঠে চড়ে,

তবে কাজটা কিন্তু বিশু ভালোবেসেই করে -

তাই পারিশ্রমিক‌ও তার শূন্য।


স্বপ্ন বিলির এমনই একটা গভীর ব্যস্ত রাতে,

ক্লান্ত রূপাই বিশু রাক্ষসকে ধরে নিলো হাতেনাতে,

ভয় পেয়ে শেষে বিশু রাক্ষস কি করবে ভেবে না পেয়ে-

স্বপ্ন রাখার ঝোলায় - রুপাইকে ভরে নিয়ে গেল সাথে।


অবাক রুপাই তো বুঝেই পায় না - ব্যাপারখানা কি!

এমন আজব লোকও তো সে আগে দেখেনি! উড়তে পারে - ছুটতে পারে হাওয়ার চেয়েও জোরে,

শুধু দেয় না সাড়া হাজার ডাকে আর - নামটাও বলেনি।


বাড়ি পৌঁছলো বিশু যখন, তখন ভোর হচ্ছে সবে,

ঘুমাচ্ছে রূপাই, কিন্তু তাকে তো এখনি একটা স্বপ্ন বুনতে হবে,

খেয়ালের বশে রুপাইকে সে তুলে এনেছে ঠিকই-

কিন্তু বাকি রাক্ষসরা দেখে নিলে ওকে - বাঁচানো কি আর যাবে?


ছেলে ছিল যে বিশুরও একটা - রুপাইয়ের মতই হবে,

রক্ত, স্বার্থ, মাংসের লোভ তাকে টানতো না কো সেভাবে,

চেয়েছিল সে শুধু স্বপ্ন খুঁজতে রামধনুর রঙে রাঙা,

আর নিষেধ যত বায়না গুলো - আগলে রেখেছিল মনে নীরবে।


খবরটা ছড়াতেই একঘরে হতে হলো -

সে যে আস্ত কুলাঙ্গার! রাক্ষসকূলের নিয়ম মানে না -

এমন সাধ্যি তার! বাবা হয়েও ছেলের ইচ্ছেটা বোঝেনি

সেদিন বিশু- কিন্তু ছেলেটা যখন চিরঘুমে গেলো - পাশে রইলো না যে কেউ আর।


বেঁচে থাকার স্বপ্ন ছেলেটার, আজও রাখা আছে ঘরে,

সেইটাকেই যে আজ দরকার বিশুর - নইলে রুপাইয়ের মনে বাঁচার ইচ্ছে - জাগাবে কেমন করে?

মরতে চাওয়ার আগের ক্লান্তি বিশু চেনে যে ভীষণ রকম- এভাবেই যদি তার ছেলেটা তাকে - কোনোদিন‌ও ক্ষমা করে।


Rate this content
Log in

More bengali poem from Pritam Banerjee

Similar bengali poem from Inspirational