Buy Books worth Rs 500/- & Get 1 Book Free! Click Here!
Buy Books worth Rs 500/- & Get 1 Book Free! Click Here!

Mitali Chakraborty

Classics


3  

Mitali Chakraborty

Classics


স্মৃতি:-

স্মৃতি:-

2 mins 231 2 mins 231

রাজনন্দ গ্রামেই পরিচয় হয়েছিল তাদের, তারা কারা? তারা আমাদের এই গল্পের নায়ক আর নায়িকা। নায়ক থাকতো গ্রাম থেকে ক্রোশ দূরে শহরাঞ্চলে। নায়িকা থাকতো গ্রামের এক প্রান্তে। কাকতালীয় ভাবেই হয়েছিল তাদের সাক্ষাৎ। নায়ক তার এক পরিচিত ব্যাক্তির ঠিকানা জিজ্ঞেস করতে করতে আচমকা মুখোমুখি হয়েছিল নায়িকার। নায়িকার মুখমণ্ডলে তখন একরাশ বিরক্তি, হবে নাই বা কেনো? লাল পেড়ে দুধে সাদা রঙের কাপড়ে নায়িকা যে চলছিল তার গন্তব্যের পানে! গন্তব্য কোথায়? না, সামনের শিব মন্দির। প্রত্যেক সোমবারই তো আমাদের গল্পের নায়িকা পুজো দিতে যায় শিব মন্দিরে, আজও অন্যথা হলো না।

কিন্তু নায়ক যখন তার বিকট চারচাকা গাড়ি হাঁকিয়ে কাদা মাখা রাস্তা দিয়ে যেতে যেতে নায়িকার দুধে সাদা শাড়িতে কাদাজল বিচ্ছুরিত করলো অতি স্বাভাবিক ভাবেই নায়িকার প্রচন্ড রাগ হলো। নায়ক ক্ষমা প্রার্থনা করলেও নায়িকার মন বিগলিত হয়নি তখন।অতিশয় ক্রুদ্ধ হয়ে রাগে গিজগিজ করতে করতেই সে চলে গেল নায়কের সামনে থেকে।

পুজো সেরে নিজ বাড়ির পথে ফেরার সময়ে নায়িকার পাড়াতুতো বোনের বাড়িতে শিবঠাকুরের পুজোর প্রসাদ দেওয়াটা নায়িকার প্রথম কর্তব্য। গিয়েছিলোও তাই... কিন্তু একি! বাড়ির উঠানে রাখা সেই গাড়িটা, আর বারান্দায় বসা ওই ছেলেটা! নায়িকার দৃষ্টিতে তখন কৌতূহল আর রাগ মিশ্রিত চাহনী।

*******************************

তারপর থেকে ক্রমশই দেখা হতে লাগলো গল্পের নায়ক নায়িকার, কোথায়? ওই রাজনন্দপুর গ্রামের বড় বুড়ো বটগাছের তলায়। নায়ক গ্রামের ওই পরিচিত আত্মীয়দের বাড়িতেই থাকছে আজকাল কলেজের গরমের ছুটিতে। নায়ক পুনরায় ক্ষমা প্রার্থনাও করেছিল নায়িকার কাছে সেদিনের কাদা ছিটানোর গর্হিত কাজটির জন্য। নায়িকা মিষ্টি লাজুক স্বরে জানান দিয়েছিল "ঠিক আছে...."। পরিচয় তখন ভালোলাগা, পরিশেষে পরিণত হলো ভালোবাসায়। কিন্তু ভালোবাসলেই কি আর ভালোবাসার মানুষকে পাওয়া যায়? যায় না তো! অতি রক্ষণশীল পরিবারের কন্যা আমাদের নায়িকা তার অভিভাবকেরা কখনোই মেনে নিতে পারেনি সুদূর শহুরে নায়ককে কন্যার মনের মানুষ রূপে।

কিছু কিছু সদ্য বিকশিত কুড়ি যেমন দ্রুত শুকিয়ে যায় আমাদের নায়ক নায়িকার ভালোবাসার কুড়িটিরও আর প্রস্ফুটন ঘটলো না। কিন্তু নায়কের মনে এখনও তার নায়িকার জন্য অসীম টান। সে যখনই আবার এই গ্রামে আসে সেই বড় বুড়ো বটগাছটা হয় তার মনখারাপের সঙ্গী, অধিকাংশ সময় সে অতিবাহিত করে এই গাছের নীচে দাঁড়িয়ে থেকে সেই পুরনো স্মৃতি গুলো রোমন্থন করেই....


Rate this content
Log in

More bengali story from Mitali Chakraborty

Similar bengali story from Classics