Participate in the 3rd Season of STORYMIRROR SCHOOLS WRITING COMPETITION - the BIGGEST Writing Competition in India for School Students & Teachers and win a 2N/3D holiday trip from Club Mahindra
Participate in the 3rd Season of STORYMIRROR SCHOOLS WRITING COMPETITION - the BIGGEST Writing Competition in India for School Students & Teachers and win a 2N/3D holiday trip from Club Mahindra

গুলাল আবু বকর

Comedy Others


3  

গুলাল আবু বকর

Comedy Others


হাসি পেলে হাসুন, কিম্বা...৫

হাসি পেলে হাসুন, কিম্বা...৫

4 mins 234 4 mins 234

            •• পরামর্শ ••

একবার এক অনুষ্ঠানে এক ডাক্তার ও এক উকিলের দেখা হয়েছে। দুজনে আলাপ করছেন। এমন সময় এক ব্যক্তি এসে হাজির। সমস্যা হলো, তার পেটে ব্যাথা। ডাক্তারবাবুকে সেখানে সে ধরলো। ডাক্তারবাবু কি আর করেন, লিখে দিলেন প্রেসক্রিপশন। লোকটি এরপর চলে গেল। ডাক্তার তখন উকিলকে কথায় কথায় বললেন, 

— বুঝলেন, এই এক অসুবিধা। আমি ডাক্তার বলে পথে ঘাটে নানা হ্যাপা পোয়াতে হয়। মানুষ এসে যেখানে সেখানে বিনা পারিশ্রমিকে পরামর্শ চায়। কি করা যায় ঠিক বুঝে উঠতে পারছি না। 

উকিলবাবু বললেন, 

— আমি এর এক উপায় জানি। 

ডাক্তার বললেন, 

— বলুন তাহলে কী সেই উপায়। 

উকিল বললেন, 

— রোগীর ঠিকানা সংগ্রহ করে নেবেন। পরদিন তার বাড়িতে আপনার ‘ফিজ'এর একটা বিল পাঠিয়ে দেবেন। 

এটা শুনে ডাক্তার মহাখুশি হলেন। উকিলকে একেবারে জড়িয়ে ধরে ধন্যবাদ দিলেন। অনুষ্ঠান শেষে সবাই যে যার বাড়ি চলে গেলেন। 

পরদিন দুপুরে ডাক্তারবাবু তার ফোনের মেল বক্সে একটা মেসেজ পেলেন। সেই উকিলবাবু তাকে পাঠিয়েছেন। ওতে লেখা আছে : প্রিয় ডাক্তারবাবু, নিশ্চয় মনে আছে গতকাল খানাপিনার সময় আপনাকে আমি একটি পরামর্শ দিয়েছিলাম। আশা করি সেটি আপনার দারুণ কাজে আসবে। খুব বেশি নয়, পরামর্শ বাবদ আমি মক্কেলদের কাছ থেকে মাত্র পাঁচ হাজার টাকা নিয়ে থাকি। সুতরাং পাঠিয়ে দেওয়ার অনুরোধ রইলো। ইতি। <>


কোনো এক শিক্ষক ছাত্রকে বলছেন, 

— তোর রেজাল্ট আশানুরূপ ভালো হয়নি। বাবাকে বলিস একবার স্কুলে আসতে। বিষয়টা নিয়ে পরামর্শ করবো। 

ছাত্র বললো, 

— স্যার, বাবা কোথাও পরামর্শ করতে গেলে অনেক টাকা নেয় শুনেছি। 

শিক্ষক চমকে গেলেন - ঢোক গিলে বললেন,

— সেকি, কেন রে?

ছাত্র উত্তর দিলো, 

— স্যার, আমার বাবা যে নামকরা উকিল। <>


একজন মহাকৃপণ মারা যাওয়ার ঠিক আগে ছেলেকে বলে গেলো, 

— বাপ, জীবনে বুঝেসুঝে খরচ করবি। আমার এক কৃপণ বন্ধু আছে, প্রয়োজনে তার পরামর্শ নিবি।... 

এই বলে পিতা মারা গেলো। সেই ছেলে এক সন্ধ্যায় বাবার ঐ বন্ধুর বাড়িতে গেলো। সেই বন্ধুটি ঐ ছেলেকে একটি ছোট ঘরে বসতে বললো। কথা যখন শুরু হলো তার বাবার বন্ধু তাকে বললো, 

— শুধু তো কথাবার্তা বলবো। আলো তাই বন্ধ থাক। অযথা ইলেকট্রিক খরচ হবে। এই বলে লোকটি আলো নিভিয়ে দিল। পরামর্শ দেওয়া যখন শেষ হলো লোকটি বললো, 

— এবার তাহলে আলো জ্বালিয়ে দিই। না হলে তুমি আবার যেতে পারবে না। 

সেই ছেলে সঙ্গে সঙ্গে বলে উঠলো, 

— কাকা একটুখানি দাঁড়াও। জামা-প্যান্ট দুটো পরে নিই। ওগুলো যাতে তাড়াতাড়ি নষ্ট হয়ে না যায়, তাই খুলে রেখে দিয়েছি। 

সেই কথা শুনে তার বাবার বন্ধুর অজ্ঞান হবার অবস্থা। তখন ছেলেটির মুখের দিকে তাকিয়ে সে বললো, 

— হ্যাঁ রে, আমি কাকে পরামর্শ দিচ্ছি! বাবু, পরামর্শ তো তোমার কাছ থেকে আমার নেওয়া উচিত! <>


জীবনের বহুক্ষেত্রে পরামর্শ, আলোচনা এসব করে চলতে হয় এবং সিদ্ধান্ত নিতে হয়। সকল সময় সঠিক সিদ্ধান্তে উপনীত হওয়া সবার সাধ্যে কুলায় না। যেকোনো সময় ভুল করার সমূহ সম্ভাবনা থেকে যায়। যেহেতু বিবেচনাবোধ ও অভিজ্ঞতার একটা মূল্য আছে তাই এর গুরুত্বও আছে। চড়াই উৎরাই পার হওয়ার সময় কোথায় বিপদ থাকতে পারে আর কোন্ জায়গা নিরাপদ তা একজন গাইড বলে দিতে পারেন। নতুন একজন নাবিক জানেন না জলপথে নিরাপদ দিকনির্ণয় কীভাবে করতে হয়। একজন অভিজ্ঞ নাবিক তাকে এসব শেখান, পরামর্শ দেন।

       সুতরাং সকল পরামর্শ ভুল বা তুচ্ছ বা হাস্যকর এমনটা নয়। ... এসব বিবেচনায় রেখে আরো কয়েকটি মজার পরামর্শের কথা বিবৃত করি।

       জীবনে সফল ও প্রতিষ্ঠিত একজন ব্যক্তি ভীড়ে ঠাসা একটি প্রেক্ষাগৃহে হতাশা কাটিয়ে উঠে প্রত্যয় গড়ে তোলার জন্য পরামর্শ দিয়ে বক্তব্য রাখছেন,

— আমি অনেক লড়াই করে এখানে দাঁড়িয়েছি। যখনই একটি কাজ শুরু করেছি ব্যর্থ হয়েছি। প্রথম চেষ্টায় কোনোদিন সফল হতে পারিনি। কোনো কাজে সাফল্য একেবারে প্রথম সুযোগে পাইনি...

       এমন সময় তাকে থামিয়ে দিয়ে সামনের সারিতে বসে থাকা একজন শ্রোতা উঠে দাঁড়ালো। বক্তাকে সে বিনীতভাবে প্রশ্ন করলো,

— স্যার, পাইলট হওয়ার জন্য আপনি কখনো স্কাই ডাইভিং শিখতে যাননি?

       একথা শুনে বক্তা মৃদু হাসলেন। জবাবে বললেন,

— আপনাকে আশ্বস্ত করে বলছি, না ওটা শিখিনি। যে ধরনের ট্রেন্ডের কথা এর আগে আমি বললাম, ঐ ক্ষেত্রে সেটা বজায় থাকলে আজ এই স্টেজে আমাকে পেতেন না। <>

        

       একবার হয়েছে কি, একটি বেশ বোকা-হাবা লোককে দেখে আমি খুব হাসছি, নিজের সেই বোকামির হাসি থামাতে পারছি না। অনেক মজা লাগছে। আমার এই অধঃপতনের হেতু লক্ষ্য করে একজন বিজ্ঞ মানুষ যোগ্য কারণে এগিয়ে এলেন এবং যথার্থভাবে আমাকে সাবধান করে দিয়ে পরামর্শ দিলেন,

— কাউকে দেখে ওমন হাসাহাসি করতে নেই। কে বলতে পারে, হয়তো একদিন তুমিও ঐ অবস্থায় পড়ে যাবে, তার মতো হয়ে যাবে।

আমার মাথা পরামর্শটা ধরে নিলো। ওটা কাজের মনে হলো। এরপর থেকে প্রায় রোজই আমি প্রধানমন্ত্রীকে দেখে হাসাহাসি শুরু করে দিয়েছি... কোনোদিন যদি তার মতো... <>

        

       এখন শেষ গল্পটি শুরু করছি।

একবার একটি জনবহুল জায়গায় এক ব্যক্তি চিৎকার করে বলছে,

— শুনুন বোনেরা ও ভায়েরা, আমি আপনাদের একটি অতি গুরুত্বপূর্ণ পরামর্শ দিয়ে যাবো, যা আপনাদের জীবন পাল্টে দেবে। সুখে থাকতে পারবেন।

একটু পরে অনেক মানুষ সেখানে জড়ো হয়ে গেলো। দারুণ কিছু শোনার আশায় তারা উদগ্রীব। ঐ ব্যক্তি প্রত্যেকের কাছ থেকে ১০ টাকা করে সংগ্রহ করলো তার পরামর্শের জন্য বিনিময় হিসেবে। সবাইকে গোলাকারভাবে দাঁড় করিয়ে সে বললো, 

— আপনারা সবাই আমার একটি কথা শুনুন। নিজের মা-বাবার কথা না শুনে কেমন দূরাবস্থা হতে পারে আমাকে দেখে শিখুন। ওদের সুপরামর্শ শুনে কাজ করলে আজকে আমাকে এই রাস্তায় দাঁড়াতে হতো না।

     © পরামর্শ আপাতত এই পর্যন্ত।

    # ৬ নং পর্ব শীঘ্রই পেয়ে যাবেন।



Rate this content
Log in

More bengali story from গুলাল আবু বকর

Similar bengali story from Comedy