Sagnik Bandyopadhyay

Classics


2  

Sagnik Bandyopadhyay

Classics


অত্যাচার

অত্যাচার

2 mins 628 2 mins 628

রবিবার বেলা ১২ টায় নৃশংসভাবে হত্যাকাণ্ড চলল রাস্তার দু'ধারে। তাদের আর্তনাদ যেন গগন ভেদ করে চারিদিকে ছড়িয়ে পরতে থাকলো। না কেউ ছিল না তাদের বাঁচানোর জন্য। কুড়ুল, কাটার মেশিন প্রভৃতি দিয়ে তাদের দেহের প্রত্যেক অঙ্গকে খণ্ড-বিখণ্ড করা হলো। যেন তারা চিৎকার করে বলছে,"বাঁচাও! বাঁচাও!" কিন্তু তারা জানেনা এই সমাজের মধ্যে অত্যাচারের বীজ নিহিত আছে। এখনকার বেশিরভাগ মানুষের অত্যাচার তাদের শখে পরিণত হয়েছে। এই অত্যাচারের ধরণ একটু অন্যরকম। আপনারা ঠিকই ধরেছেন এই অত্যাচার গাছের ওপর চালানো হয়। এখনকার বেশিরভাগ মানুষেরা তাদের পাশবিক প্রবৃত্তির বশে কাজ গুলির উপর অকথ্য অত্যাচার চালায়। সেদিন দেখলাম আমার বয়সীই একটি ছেলে রাস্তা দিয়ে যেতে যেতে হঠাৎ একটি মাঝারি উচ্চতার গাছের ডাল এমনভাবে ভেঙে দিল যে গাছটা পরের দিন দেখি মরে গেছে। তার পরেরদিন ওই ছেলেটিকে ডেকে বললাম," গাছটা এরকমভাবে ভাঙলে কেন?" উত্তর দিল," বেশ করেছি।" এত রাগ হচ্ছিল যে গিয়ে দুটো থাপ্পর মেরে দিই। কিন্তু নিজেকে সংযত করলাম। একদিন দেখি একটি ফ্ল্যাটের সামনে রাস্তায় গাছ আছে। সেই গাছের গোড়ায় একজন মহিলা বিষ দিচ্ছেন। দেখে দৌড়ে গিয়ে বলি," কাকিমা এরকম করবেন না। গাছেরও যে প্রাণ আছে। গাছের জন্যই তো আমরা বেঁচে আছি।" শুনে বললেন," গাছটার ডাল আমাদের জানলায় চলে আসছে।" তৎক্ষণাৎ বলে উঠলাম,"তাহলে গাছটাকে মেরে দেবেন না। গাছটা মরে গেলে আমাদের তো আয়ু কমে যাবে। আপনি গাছটার কষ্ট নাই বা ভাবলেন, নিজেদের কথা তো ভাবুন।" উনি শুনে চলে গেলেন। কিন্তু বিপরীত মানুষও দেখেছি তারা এই পাশবিক অত্যাচারের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়েছেন। যদি আমরা এই অত্যাচার চালিয়ে যাই তাহলে সেই অত্যাচারের কুফল আমাদেরকেই ভুগতে হবে। একবার ভাবুন তো আমাদের মতোই তো গাছগুলোর প্রাণ আছে। তাদেরও তো ব্যথা লাগে। কিন্তু তা আমরা বুঝিনা। ভাবতে অবাক লাগে আমরাই আবার নিজেদের মানুষ বলে গর্ববোধ করি। যখন রাস্তায় গাছেদের ওপর অত্যাচার সংঘটিত হয়, তখন এর প্রতিবাদে আন্দোলনের জন্য কোনো মানুষ পাইনা। বিঘের পর বিঘে জমিতে থাকা গাছেদের ওপর নৃশংস অত্যাচার চালিয়ে তাদের হত্যা করা হচ্ছে। এই সমাজে এদের রক্ষা করার মতো মানুষের বড়ো অভাব। হায়! যারা এদের অত্যাচার করে হত্যা করছে তারা হত্যালীলায় মগ্ন হয়ে নিজেদের জীবনকে যে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দিচ্ছে , সেটা তাদের মাথায় আসছে না। আমার বিশ্বাস আমরা যদি সচেতন হই তাহলে অত্যাচারী এইসব মানুষদের সমাজ থেকে ছুঁড়ে ফেলে দিতে পারব।


Rate this content
Log in

More bengali story from Sagnik Bandyopadhyay

Similar bengali story from Classics