Manasi Ganguli

Romance

2  

Manasi Ganguli

Romance

প্রথম প্রেমের সেই দিনটি

প্রথম প্রেমের সেই দিনটি

3 mins
479


  Love at first sight? হবে হয়তো। হয়তো নয়,তাই। একমেবদ্বিতীয়ম্,প্রথম বল আর শেষই বল।প্রথম প্রেমের সে অনুভূতি কোথায় যে ঘাপটি মেরে বসেছিল,আজ লিখতে বসে সেসব মনের মধ্যে রিনরিন করে বেজে উঠছে।

     কলেজে শর্টব্রেকে,ক্যান্টিনে এককাপ চা খাবার জন্য হুড়োহুড়ি করে বেরতে গিয়ে লাগল ধাক্কা তার সাথে, কিছু বইখাতা ছিল হাতে,পড়ল ছড়িয়ে। দু'জনেই নিচু হয়ে তুলতে গিয়ে মাথায় মাথায় ঠোক্কা,হেসে ফেললাম দু'জনেই,চোখাচোখি হতেই সারাশরীরে যেন এক শিহরণ বয়ে গেল,হৃদয়যন্ত্র ব্যাকুল হয়ে উঠল,হয়েছিল কি তখন আমার অ্যাড্রেনালিন রাশ! হবেও বা,সে ঘটনা যে চোখে লেগেই থাকল আমার। ঐ দুটো চোখ আমায় সারাক্ষণ সঙ্গ দিতে লাগল,খাচ্ছি,শুতে যাচ্ছি,চোখে আমার ঘোর। "নয়নের মাঝখানে নিয়েছে সে ঠাঁই"।বুঝলাম,'তার চোখে আমি আমার মরণ দেখেছি'।

    তখন কলেজে নতুন,আলাপ হয়ে ওঠেনি সবার সাথে। তার সাথে যদিও সেদিন হাসি বিনিময় হয়েছিল তবু আলাপটা তেমন হয়নি। কিন্তু ক্লাসে ঢুকেই একঝলক খুঁজে নিত আমার চোখ দুটো,তেমনি আমিও দেখেছি তাকে,তার চোখ খুঁজে বেড়াচ্ছে কাউকে,বুঝতাম সে আমি। এর ঠিক পরপর একদিন বাস থেকে নেমে কলেজ যাবার পথে বৃষ্টি নামল ঝিরিঝিরি,ছাতা নেই কাছে,ভিজছি একটু একটু।কিছুদূর হনহনিয়ে যাবার পর দেখি সামনে সে যাচ্ছে ছাতা মাথায়,ছুট্টে গিয়ে তার ছাতায় আশ্রয় নিই। যদিও তখন তেমন কিছু ভেবে করিনি,কেবল মাথাটুকু বাঁচিয়েছিলাম কিন্তু সে ভেবেছিল। আর তাই এমনভাবে আমার দিকে তাকিয়েছিল মিষ্টি হেসে,'তার চোখে সেদিন দেখেছিলাম আমি আমার সর্বনাশ'।

     এর ক'দিন পর একটা অফ পিরিয়ডে এক সহপাঠী দীপক,প্রথমদিনই তার সাথে আলাপ হয়েছিল,আগের দিনের একটা নোটস চাইল আমার কাছে। আমি ওর নোটবুকে টুকে দিচ্ছিলাম,সে এল ক্লাসে,অফ পিরিয়ডে সবাই যখন গল্প করছে,আমি কি লিখছি জানতে চাইলে দীপকই বলে দিল। সে তখন দীপককে বলল,"তোমার ওকে একটা cadbury দেওয়া উচিত"। দীপক রাজি হয়ে যায়। সে আবার বলে,"Amul Cadbury কিন্তু"। এবার আমায় বলে,"Amul Cadburyর captionটা কি জানো?"আমি চোখ তুলে তাকাই। সে বলে,"share it with someone you love,তুমি আমার সাথে শেয়ার করবে তো?" আমি সাত-পাঁচ না ভেবেই বলে দিই,"হ্যাঁ"। ক্লাসে তখন অনেকে হাসছে,আমি ভ্রূক্ষেপ না করে আবার লিখতে শুরু করি। সে কিন্তু সেদিন ভেবে নিয়েছিল আমি বুঝেই বলেছি,তাই খুশীতে ডগমগ।আমার ধারেকাছে আসার চেষ্টা সবসময়,বাড়ী ফেরার সময় বাসস্ট্যান্ড পর্যন্ত আমার সঙ্গে গিয়ে আমায় বাসে তুলে দেওয়া,এরপর শুরু হল আমার সাথে মিনিবাসে উঠে পড়া,পাশাপাশি বসে গল্প করতে করতে যাওয়া,আবার আমার বাড়ীর বাসস্টপের আগের স্টপে নেমে বাড়ী ফেরা। বন্ধুত্ব এগলো,যদিও সে প্রেমে ডগমগ,তখনও বুঝিনি আমি তেমনভাবে যে আমিও তার প্রেমে ডুবে আছি। ভালভাবে বুঝলাম সেদিন,যেদিন পরপর তিনদিন কলেজ ছুটি ছিল। অস্থির লাগছে,কবে তিনদিন পার হবে। তার সঙ্গ মিস করছি ভীষণ,যদিও বুঝতে দিইনি। এরপর খ্রীসমাসের ছুটি,অতদিন কিভাবে থাকব! সে বলল,কলেজের কাছেই তার আত্মীয়ের বাড়ী,সেবাড়ীর বৌদিকে নিয়ে আসানসোল পৌঁছে দিতে হবে দাদার কাছে। কবে যাবে,ক'টায় ট্রেন সব বলেছিল গল্পছলে,হয়তো বা আমার কানে পৌঁছে দিতে। সেদিন আমি ছুটির মধ্যে বাড়ী থেকে বেরিয়ে ওইসময় তার সেই আত্মীয়ের বাড়ীর সামনে দিয়ে তিনবার পাক খেয়েছিলাম যদি দেখা হয়ে যায়,হয় নি। ছুতো ঠিক করে রেখেছিলাম যে কাছেই এক প্রফেসারের বাড়ী,সেখানে যাব বলে,যাতে দেখা হলেও না বুঝতে পারে তার জন্যই এসেছি।

       এভাবে মনে মনে এগিয়ে গেছি অনেকদূর। সেও ক্লাস শেষ হলে এদিকওদিক ঘোরায়,বলে,"চল ওদিকটা তোমায় চেনাই"। বেশ লাগে। এভাবে চিনতে চিনতে একদিন সন্ধ্যে হয় হয়,গঙ্গাধারে নিয়ে গিয়ে সরাসরি propose করে বসে। বলে,"তুমি যদি পাশে থাকো, আমি অনেক উঁচুতে উঠব আর যদি না বল,কলেজ ছেড়ে চলে যাব,আর আসব না তোমার সামনে"। আমার হাত-পা ঠান্ডা হয়ে গেছে,না বলব কি,আমি তো এরই অপেক্ষায় ছিলাম।


Rate this content
Log in

Similar bengali story from Romance