Exclusive FREE session on RIG VEDA for you, Register now!
Exclusive FREE session on RIG VEDA for you, Register now!

AYAN DEY

Drama Classics Fantasy


3  

AYAN DEY

Drama Classics Fantasy


মণি আর স্বামী

মণি আর স্বামী

3 mins 206 3 mins 206

মালগুড়ি শহরে থাকাকালীন স্বামী তার অনেক প্রিয় বন্ধুর সাথে পরিচিত হয়েছিলো । তাদের সাথে আজও বিভিন্ন রি-ইউনিয়নে মিট করলে মন ভালো হয়ে যায় । মণি এখন ব্ল্যাকবেল্ট হয়েছে । রাজম ডি.এম হয়েছে মালগুড়িরই । এই রাজমকেই প্রথম দিকটায় কেউ সহ্য করতে পারতো না ।

নাক উঁচু বলে বদনাম নিয়ে স্কুলে এলো রাজম । মণি কথায় কথায় ওর অহমের কারণে মুগুর দিয়ে পেটানোর কথা বলতো ।

সেদিন প্রিন্সিপাল ও এক মিশনারি টিচারের সাথে উত্তপ্ত সংলাপের পর বন্ধুরা একজোট হয়েছে । রাজম নেমেছে সবে গাড়ি থেকে । 

মণি বলে , " যে কোনো দিন দুমদাম মেরে হাত পা ভেঙ্গে দেবো । দেখ দেখ কি ডাঁট ! "

স্বামী বলে , " ওর বাবা ডিএসপি , সাবধান । শুনেছি পুলিশ খুব সাংঘাতিক হয় । "

মণি বলে , " আরে ভীতুর ডিম কোথাকার ! তুই বল ওর আমার মধ্যে মধ্যস্থতা করবি ? "

" মণি তোমায় ভক্তি করি কিন্তু আমি মধ্যস্থতা কেন ? "

" ওই ছোঁড়ার সাথে আমি কথা বলবো না । কিন্তু ওকে নদীর ধারে আনতেই হবে । তুই আমার কথাগুলো পাস করে দিবি । আজকাল তো খুব পিছু পিছু ঘুরছিস , হেব্বি চামচাগিরি করছিস ! "

" আরে ধুর না না । তুমি আমার একমাত্র কাছের বন্ধু । ও তো নিজেই আসে আমার কাছে পেন্সিল , শার্পনার নিতে ! "

" বাজে বকিস না , নিজে দেখেছি তোকে টিফিন শেয়ার করতে । সে যাকগে তুই মধ্যস্থতা করবি । "

অনুপায় হয়ে স্বামী রাজি হলো । কিন্তু পরদিন রাজম কই ! রাজম তো ক্লাসে নেই ! ওদিকে মণি স্বামীর দিকে চোখ পাকিয়েছে যেই স্বামী ঘাড় নেড়ে বুঝিয়ে দেয় সে জানে না । 

ঘটনাটা সংস্কৃত ক্লাসের পর খোলসা হলো । ডি.এস.পি নিজে খোঁজ করতে এসেছেন ছেলের । প্রিন্সিপাল তাঁকে নিয়ে ক্লাসে এলে দেখেন ছেলে নেই ।

" টুডে রাজম কেম অর নট ? স্বামী ইউ মেট ? "

" নো নো স্যার । টুডে হি ডিড নট কাম । "

প্রিন্সিপাল বেরোতেই ক্লাস ভাঙ্গতে বাধ্য হলেন স্যার । স্বামী আর মণি জল্পনা করতে লাগলো ।

" কী হলো বলতো স্বামী ? "

" জানি না , বড়ো আজব ব্যাপার । "

" চ ওর বাবার থেকে যদি কিছু জানতে পারি । "

ওদের জিজ্ঞাসা করার আগেই প্রিন্সিপালের সাথে রাজমের বাবার কথোপকথন কানে গেলো । তার থেকে জানা গেলো , রাজেশ বলে এক গুণ্ডাকে তিনি ধরেছিলেন কদিন আগে বাচ্চাচুরির দায়ে । কিন্তু প্রমাণের অভাবে তিনি ওকে ছাড়তে বাধ্য হন । কিন্তু রাজেশের ওনার ওপর সমূহ রাগ । এটা তাঁর বাড়ির কাঁচ ভাঙ্গা থেকে শুরু করে নিয়ে বাগানের গাছের ডাল কেটে ফেলা থেকে প্রমাণ পেয়ে যাওয়া যায় । আর কয়েকটা হুমকি চিঠিও পেয়েছেন তিনি ।

" আমি জানি স্বামী রাজেশের আড্ডা । যদি ওখানে রাজমকে নিয়ে গিয়ে থাকে আমি একা কাফি ছাড়াতে । সে তুই থাকবি নয় সাথে । কিন্তু একটা খটকা এই যে রাজেশ তো গুণ্ডা নয় । বরং নেতা । সে যাক আমি আর তুই মিলে ছাড়াবো । "

" কোথায় জায়গাটা ? " স্বামী বলে ।

" ওই নদীর গায়ে যে ছোট টিলাটা রয়েছে তার পিছনে । "

" চলো তবে আর দেরী করা ঠিক নয় । "

স্বামী মণিকে অনুসরণ করে এগোনোর সাথে সাথে একটা বাড়ির সামনে এসে পড়লো । ওরা আসতেই রাজম হাসিমুখে বেরিয়ে এলো । ওমা একি সাথে রাজমের বাবা আর প্রিন্সিপালও ।

" ও রাজম তুই বেটা চালাকি করেছিস ! "

" তোমাদের সাথে বন্ধুত্ব পাকা করতে এই একটা খেলা বাবা আর রাজেশ কাকা করলো । "

স্বামী আর মণি রেগে চলে আসছিলো দেখে রাজম ওদের হাত টেনে ধরলো ।

" আমার ওপর যদি রাগই করো তবে বাঁচাতে এলে কেন ? আমার বন্ধুত্ব স্বীকার করো না কেন ? "

" তুই তো আমাদের পাত্তা দিস না । "

" আজ থেকে আমরা বন্ধু , এই হাত বাড়ালাম । "

এরপরই মণি আর স্বামী হাত মেলালো ।

রাজেশ বললো , " বাহ আমি যে মালগুড়ির নেতা তা ভাবতেও ভালো লাগে । "


Rate this content
Log in

More bengali story from AYAN DEY

Similar bengali story from Drama