End of Summer Sale for children. Apply code SUMM100 at checkout!
End of Summer Sale for children. Apply code SUMM100 at checkout!

Arundhati Rax

Tragedy


2.1  

Arundhati Rax

Tragedy


সং সাজা

সং সাজা

3 mins 10.5K 3 mins 10.5K

কদিন ধরেই রিয়ার বেশ জ্বর,কিছু না কিছু শরীর খারাপ লেগেই চলেছে,দিন দিন যেন বেশ দুর্বল'ও হয়ে উঠছে৷স্কুলও কামাই হচ্ছে প্রায়-ই৷

এদিকে দেবিনার কয়েকদিন ধরে দুটো প্রোডাকশন হাউসের সাথে একসাথে কাজ চলছে৷সকাল,বিকেল টানা শুটিং৷মিনার মা ঢোকার সাথে সাথেই দেবিনাকে বেরিয়ে পড়তে হয়,বাদবাকি ঘরবাড়ির দেখাশোনা তখন মিনার মা'ই করে থাকে৷রিয়ার পুরো দিনেরবেলার দায়িত্ব ও ওনার ওপরেই৷কিন্তু ৬.৩০ বাজলেই কার সাধ্য ওনাকে আটকায়৷ 

আসলে অনির্বান চলে যাওয়ার পর থেকেই পুরো একার ঘাড়ে এসে পড়েছে সব দায়িত্ব দেবিনার ওপর৷অথচ ৫ বছর আগেও ভাবতে পারেনি দেবিনা এইভাবে single mother তাকেই হয়ে উঠতে হবে৷৫ বছর আগে ২ বছর কোর্টশিপ ছিল ওদের,তখনও দেবিনা এই পেশাতেই ছিল৷অভিনয়টা ওর বড় প্রিয় জিনিস৷সেটা নিয়ে প্রথম ২ বছর কোনোদিন কোনোরকম আপত্তি শোনেনি কিংবা দেখেনি অনির্বান এর দিক থেকে৷কিন্তু বিয়ের ঠিক ১ মাস এর মাথায় যেদিন অনির্বান বললো "এই রং মেখে সং সাজার পেশাটা কি এবার না ছাড়লেই নয়?" তখন'ই মনে মনে প্রমাদ গুনেছিলো দেবিনা৷তারপর ধীরে ধীরে অশান্তি আরো বাড়তে থাকলো,বিভিন্ন রকম ছিল তার কারণ৷তারপর সব ঝগড়া বিবাদ একদিন সাঙ্গ হলো একটা ৮ পাতার লেখা কোর্ট এর কাগজ এর মাধ্যমে৷মেয়েকে নিয়ে ভাড়া ফ্ল্যাটে এসে উঠলো দেবিনা,শুরু হলো বেঁচে থাকার লড়াই৷

প্রথম শিফট'এ দেবিনা এখন 'বালাজি' প্রোডাকশন হাউসের সাথে কাজ করছে,আর পরেরটা ছোট একটা documentary ফিল্ম এর কাজ৷

বালাজীর সাথে যে কাজটা করছে সেটা ছোট কিন্তু গুরুত্বপূর্ণ রোল,এক গর্ভবতী মহিলার রোল,যিনি আসছে সপ্তাহেই সন্তানের জন্ম দেবেন এই পৃথিবীতে৷

আজ সকাল থেকেই আকাশটা মেঘলা,হাওয়া নেই,কেমন একটা গুমোট ভাব চারিদিকে৷আজ দেবিনাকে শুটিং থেকে একটু তাড়াতড়ি ফিরতে হবে,কারণ মিনার মা আজ তাড়াতাড়ি বাড়ি যাবে৷দেশ থেকে ওর ছেলে-বৌ এসেছে,একটু রান্না বান্না করে খাওয়াবে ওদের তাই৷রিয়া বাড়িতে,স্কুলে যায় নি,গায়ে বেশ জ্বর,ডাক্তার বিভিন্ন টেস্ট করেছেন। এখন ও পর্যন্ত সঠিক কিছু ধরতে পারছে না৷ওদিকে রিয়া পাপা চলে যাওয়ার পর দিন-দিন যেন আরো দুর্বল হয়ে পড়ছে৷প্রথম প্রথম দেবিনা ভাবতো এটা বুঝি মানসিক,কিছুদিন গেলে ঠিক হয়ে যাবে৷কিন্তু আস্তে আস্তে শরীর ও যেন গ্রাস করতে লাগলো ছোট্ট রিয়ার মন খারাপ কে৷

প্রথম শটেই আজ ও.কে হলো দেবিনার৷জন্ম দিলো পৃথিবীতে এক ছোট্ট ফুটফুটে বেবি।হাসিখুশি বাড়ি ফিরলো দেবিনা তার  ছেলেকে নিয়ে৷মেকআপ রুমে এসে সবে ক্লিনজিং মিল্ক'টা হাতে নিয়েছে,রিনরিনিয়ে বেজে উঠলো দেবিনার ফোন৷হ্যালো বলতেই ওপর থেকে মিনার মায়ের গলা,"ও দিদি তুমি কোথায় আছো?জলদি বাড়ি এসো" বলেই কেটে দিলো৷

কেমন যেন মাথাটা গুলিয়ে গেলো দেবিনার৷প্রোডাকশনের গাড়ির জন্য আর wait করার টাইম নেই৷হাত দেখিয়ে হলুদ ট্যাক্সি-ই অগত্যা,"জলদি চলো,গড়িয়া৷"

বাড়ির সামনে ট্যাক্সি এসে দাঁড়ালো,ভাড়া মিটিয়ে  তাকিয়ে দেখলো,ওপরে দোতলার ফ্ল্যাটে রিয়ার ঘরে আলো জ্বলছে,হাওয়ায় দুলছে পিঙ্ক পর্দাটা৷তড়িঘড়ি ওপরে উঠেই বেল বাজাতেই,দরজা খুলে দিলো মিনার মা৷ওর দিকে না তাকিয়ে দৌড়ে রিয়ার ঘরে পৌঁছে গেছে ততক্ষন এ দেবিনা৷দেখে খাটে শুয়ে আছে রিয়া,মাথাটা একদিকে হেলানো,হাতে জড়ানো ওর প্রিয় পুপি৷

দৌড়ে এলো মিনার মা, চোখ দিয়ে জল গড়িয়ে পড়ছে৷এক নিঃশ্বাসে বলে গেলো "হরলিক্স গোলার জন্য রান্নাঘরে গেছি,ফিরে এসে দেখি শুয়ে পড়েছে৷মাথাটা কাত করা,কাছে গিয়ে দেখি ঠোঁট দিয়ে রক্ত পড়ছে,আর নিঃশ্বাস নিচ্ছে না৷কত ডাকলাম আর চোখ খুললো না গো দিদি"..............


Rate this content
Log in

More bengali story from Arundhati Rax

Similar bengali story from Tragedy