AYAN DEY

Inspirational


3  

AYAN DEY

Inspirational


বিলাসি গোঁসাই

বিলাসি গোঁসাই

3 mins 455 3 mins 455

প্রতিবারের মতো ২০১৮ এর বইমেলাতেও গিয়েছিলো শুভজিৎ । বইপোকা বলতে যা বোঝায় শুভজিৎ তাই । আগে ও আর এক বন্ধু অম্লান যেত একসঙ্গে । অফিসে ঢোকার পর শুভজিতের টাইম অম্লানের সাথে মেলে না । কিছুতেই শনিবার যেতে চায় না অম্লান । কীসব লেখালেখি নিয়ে মেতে থাকে ! শুভজিৎ খুব মন দিয়ে অবশ্য শোনেনি ওর লেখা ।

সে যাক , একাই গেছিলো সেবার শুভজিৎ বইমেলা । দুপুর ১২টায় খেয়ে দেয়ে বেরিয়ে পৌঁছতে লাগলো ৪৫ মিনিট । ওর টার্গেট থাকে অক্সফোর্ডটা চষে ফেলা , আনন্দ থেকে ছেঁকে সেরাগুলো তোলা । 

বিকেল পাঁচটা সবে আনন্দ পাবলিকেশনের স্টল থেকে দশটা বইয়ের ভার নিয়ে পত্রভারতীতে ঢুঁ মারতে গেলো । কয়েকটা ভৌতিক গল্পবই দেখে দাঁড়িয়ে প​ড়তে লাগলো । এটা তো বলাই হয়নি যে কেনা বই ছাড়াও দাঁড়িয়েই প্রচুর ১৫০-২০০ পাতার বই শেষ করতো । তো তেমনই এক ভৌতিক গল্পের বই হাতে নিয়ে পিছু ফিরেছে তো দেখে অম্লান দাঁড়িয়ে।

" কী রে তুই আমি এত বলি আসিস না আর নিজে একা ... ? "

অম্লানও কী একটা বই হাতে নিয়েছিলো । বই থেকে মুখ তুলে মিচকে হেসে বললো , " কী বলবো আর একটা কাজে আসতেই হলো ? "

শুভজিৎ বললো , " তা কী কাজ শুনি ? "

অম্লান বললো , " ওই লেখালেখি নিয়ে ... যাকগে যাকগে কী বই ওটা তোর হাতে ? "

" বিলাসি গোঁসাইয়ের ভূতের বই । "

" ও হো হো ... পড়েছিস আগে ওনার বই না এই প্রথম ? আচ্ছা পড়ে বলিস কেমন তাহলে কিনবো । তো এখানেই প​ড়বি নাকি তাহলে একটু বসা যায় আরকি ! আমিও এই বইটা পুরোনো কোলকাতার উপরে পড়ে ফেলি দেন । "

" তা বলবো কিন্তু তুই কিনেই নে না । ওই তো ৫০ পাতার বইটা , ওটা পড়তে আর কতক্ষণ লাগবে , পড়ে ফেল , পড়ে ফেল । "

" দেখি । "

টানা দুটো ঘন্টা মন দিয়ে প​ড়লো বইটা শুভজিৎ । আর ২০ পাতার মতো বাকি , তখন সামনে বসা অম্লানকে একটা কথা জিজ্ঞাসা করলো শুভজিৎ ।

" রাজপ্রাসাদে ছায়া নিয়ে খেলার উপর তুই একটা ছোটোগল্প লিখেছিলি মনে পড়ে অম্লান ? ওই গল্পটা আমি বলেছিলাম তোর বেস্ট , সব লেখা তো প​ড়িনি তোর , তাও । "

" হুমম মনে আছে । হঠাৎ ? "

" গল্পে ওই গল্পটার স্বাদ পেলাম তাই । "

অম্লান ওই পুরোনো কোলকাতার উপরে লেখা বইটা থেকে বেশ কিছু ছবি এঁকে নিচ্ছিলো । পড়া শেষ হতে শুভজিৎ উঠে বললো , " চলি ভাই অম্লান , এখনও অক্সফোর্ড বাকি । তোর তো অন্য কাজ আছে । তাই তো ? "

" হ্যাঁ রে আনন্দের লোকটা আসতে বললো , বলে নিজেই বেপাত্তা তাই তো বসে । বইটা কেমন বললি না তো ? "

" খাসা ভাই খাসা । তোর চিন্তার সাথে মিলে যাবে ,পড় । "

" ওকে টাটা । "

বহু রাত করে ফিরেছিলো সেবার শুভজিৎ । তবু খেতে খেতে টিভি না চললে হয় না । খবর দেখছিলো । বইমেলার সন্ধ্যে ৭টার ছবি ।

হেডলাইনে , " এবছর সর্বাধিক বিক্রিত বই বিলাসি গোঁসাই অর্থাৎ অম্লান সেনের ছায়াবাজি বইটি । বইমেলায় উপস্থিত তিনি । "

আপনা থেকেই বেরিয়ে এলো , " হোয়াট । "

ফোন করলো অম্লানকে , " হ্যালো অম্লান । "

" হুমম বল । এত রাতে কী ব্যাপার ? "

" তোর মজা দেখাচ্ছি ছোঁড়া । বইমেলায় বইয়ের প্রোমোশনে গেছে ছেলে , বলে কি ভালো লাগলে পড়বো ? "

" অত ব​ড়াই করতে পারি না বন্ধু । আর দেখা হতেও বললাম না , তা একটু মজাই বলতে পারিস । "

সেবারের পর এবারেও বইমেলা যাওয়ার জন্য তৈরী শুভজিৎ । মাঝে কয়েকবার অম্লানের সাথে দেখা হয়েছে । আর চারটে বই বেরিয়েছে । সবকটাই ভৌতিক । এবারেও অপেক্ষায় আছে শুভজিৎ অম্লানের একটা বই নেবে বলে ।

সেদিন ফেসবুক সার্ফ করছিলো শুভজিৎ । হঠাৎ এস্.ভি.এফের পেজে একটা ঘোষণা দেখে চমকে ওঠে । বিখ্যাত এক পরিচালক অম্লানের একটা গল্প নিয়ে সিনেমা করছেন ।

এবার ফোনটা করলো অম্লান নিজেই । " ভাই ডিরেক্টর এডিটরের সাথে বনিবনা না হওয়ায় নতুন এডিটর খুঁজছেন । তোর নাম সাজেস্ট করেছি । তোর কাজগুলো দেখাতে উনি মুহূর্তেই হ্যাঁ করে দিলেন । তোর নম্বর দিয়ে দিয়েছি । "

" কী করেছিস রে ভাই তুই ? জিও জিও , পার্টি চাওয়ার আবদারও রাখলি না । প্রস্তাব তো করে বসলি পারবো তো ? "

" ওরে পারবি শুভ পারবি । "


Rate this content
Log in