Debmalya Dutta

Drama


3  

Debmalya Dutta

Drama


ভেজা শিশির

ভেজা শিশির

2 mins 1.8K 2 mins 1.8K

 দূর্বাঘাসের নিচে একটা ছোট্ট গর্ত। তার মধ্যেই থাকে ওরা। মানুষ নয় ওরা মনুষ্যেতর। তাই বলে ওদের বিন্দুমাত্র আক্ষেপ নেই। ওরা শুধু ওদের কাজ নিয়েই ব্যস্ত। প্রকৃত ব্যস্তবাগীশ ওরা। তাই এইসব উচ্চতা টুচ্চতা নিয়ে মাথাব্যথাও নেই,নেই বিপ্লব নেই প্রতিবাদ এবং আরো অনেক কিছুই,সেইসব বলতে গেলে মহাভারত হয়ে যাবে। তবে যা আছে সেটা যেকোনো প্রানকে ঈর্ষান্বিত করে তুলতে যথেষ্ট।

 যাকগে সেকথা, এই গল্পের নায়ক যে তার কাছে আসি সে একটি ডেঁয়ো পিঁপড়ে। নাম বল্লু। নামটা ইচ্ছে করেই দিলাম।বল্লুর বয়েস সবে দিন দশেক হবে। এর মধ্যেই সে অনেক কিছু শিখে গেছে। তখন শরৎকাল। দুর্গাপূজা সবে শেষ হয়েছে। শিশির ভিজিয়ে দিচ্ছে দূর্বাঘাসের শিরায় শিরায় শীতের আলসেমি। নিচে বল্লু ও তার তুতো ভায়েরা খুব ব্যস্ত, শীত এল বলে।এবার যত তাড়াতাড়ি সম্ভব খাবারদাবার যোগাড় করে গর্তে সেঁধিয়ে যাওয়া। কিন্ত বল্লুর মন খুব খারাপ। সে শুনেছে এরপর নাকি তাকে গর্তেই দিন কাটাতে হবে অন্ততঃ মাস তিনেক। কিন্তু সে এর মধ্যেই এই প্রকৃতিকে ভালবেসে ফেলেছে। কি করবে বুঝে উঠতে পারছে না।রংবেরং-এর দুনিয়া ছেড়ে কি করে এতদিন কাটাবে!!


ওদিকে সবাই নিজের নিজের কাজ নিয়ে ভীষন ব্যস্ত।এমনকি প্রানের বন্ধু কাজ্জু ও।কখনো এটা বয়ে আনছে কখনো খাবারের পাহাড়ের খোঁজ দিচ্ছে।

 আর বল্লু শুধুই আকাশ দেখে। বিরাট এক সাগর যেন। কখনো লাল কখনো নীল,কখনো বা কালো। বল্লু তার শুঁড় দুটিকে যথাসম্ভব তুলে ধরে। কিন্তু আকাশের স্পর্শ পায় না। সে তবু দুর্বল হয়ে যায় না। তাকে যে জিততেই হবে। ছুঁতে যে তাকে হবেই।


শুনেছে মনের জোর থাকলে ডেঁয়োদের নাকি পাখা গজায়।আর তারা রঙিন আকাশ আর লাল সূর্যটাকে ছুঁতে প্রাণপন করে এগিয়ে চলে। আজ অব্দি কেউ পেরেছে কিনা কেউ বলতে পারে না অতিবৃদ্ধ মজ্জুও না।মজ্জুর বয়েস চারমাস। আমাদের হিসেবে কম কিন্তু ওদের হিসেবে সে বয়ঃজ্যেষ্ঠ।সে যখন দিনকয়েকের ছিল তখন শেষবার ডেঁয়োরা উড়েছিল। তখন বৃষ্টি ঝরার দিন। গায়ে সোঁদা গন্ধ মেখে মজ্জুর বন্ধুরা গাব্বু তুব্বু সবাই উড়ে গেছিল।মজ্জুকে তারা কথা দিয়ে গেছিল ফিরবে। সূর্যকে ছুয়ে আকাশের নীল মেখে ফিরবে।কিন্তু আজও মজ্জু কাজের ফাঁকেফাঁকে শুঁড় উজিয়ে দেখে কিন্তু গাব্বু এন্ড কোং-এর ফেরা আর হয় না।

 বল্লু সব শুনেছে। কিন্তু সে ভয় পায় না হারিয়ে যেতে। সে শুধু দিনগোনে কবে সে উড়বে। হয়ত সেই খুঁজে আনবে গাব্বু এন্ড কোং কে। ভেজা শিশিরের গন্ধ তাকে মাতোয়ারা করে তোলে। শুঁড়দুটি ঘষে ঘষে সে গান গায়। আকাশের গান। উড়ে চলার গান। বেঁচে থাকার গান। ভেজা শিশির শুধু সাক্ষী হয়ে থাকে। একটা ছোট্ট প্রাণের আর তার অনেক বড় স্বপ্নের। 



Rate this content
Log in