Sanghamitra Roychowdhury

Others


4  

Sanghamitra Roychowdhury

Others


সম্মাননা

সম্মাননা

2 mins 886 2 mins 886

প্রশান্ত মহাসাগরীয় দ্বীপপুঞ্জের দ্বীপরাষ্ট্র

পাপুয়া নিউগিনি,

সেখানকার প্রত্যন্ত এক উদ্বাস্তু শিবিরে বন্দী

এক যুবক ইরানি।

নামে যদিও বা উদ্বাস্তু শিবির বটে ,

তবে অস্ট্রেলীয় সরকারের জেল তা আদতে।


বছর ছয়েক আগে অস্ট্রেলিয়া অভিমুখী এক নৌকা

আশ্রয়প্রার্থী ইরানীয় ঠাসা একদল উদ্বাস্তু পাকা,

অস্ট্রেলিয়া উপকূলে ভেরবার আগেই সাগরেই

সে তরী,

আটক নৌকাযাত্রী ক্ষুদ্র জনতা রক্ষীদলের হাতে

ধরা পড়ি।

অস্ট্রেলীয় রক্ষীবাহিনীর অফিসারেদের অধীনে

ইরানীয় শরণার্থীরা রইলো 'প্রসেসিং'এর কারণে।

জায়গা জুটলো তাদের ফুটিফাটা ফুটো কপালে,

পাপুয়া নিউগিনির 'মানুসদ্বীপ' ক্যাম্পের এক জেলে।


শিবির কারাগারে বন্দীদলের ইরানি যুবক

বেহরাউজ্ বুচানি,

লেখক নাকি পেশায় সে এক, তরতরে গতিশীল

তার অদ্ভুত লেখনী।

অর্ধনগ্ন বুচানি কর্মরত জেলের বেড়াঘেরা গন্ডীপারে

ব্যঙ্গ বক্রোক্তিতে বিদ্ধ বুচানি,

অফিসার হাসে বিদঘুটে ঘড়ঘড়ে।

জানে নি কেউ, বোঝে নি কোনো জনে,

চলেছে যে ঘটে কত শত সব বিপ্লব,

বুচানির মোবাইল ফোনে।

হয়ে চলেছিলো লেখা পরপর অধ্যায়,

সুন্দর সুললিত বর্ণনাতীত ফারসি ভাষায় ,

হোয়াটসঅ্যাপে সে লেখা চলে যেত অবলীলায়,

অস্ট্রেলীয় অনুবাদকের তত্ত্বাবধানে,

যে ফারসি ভাষাটা দস্তুরমতো জানে।

পরপর গাঁথা হোলো সব অধ্যায় যত্নে অতি,

জন্ম হোলো 'নো ফ্রেন্ডস বাট দ্য মাউন্টেন্স'.......

নাম্নী অসাধারণ এক কীর্তি।


কেমন ছিলো বুচানির সেই কালি কাগজবিহীন

বই লেখার দিনগুলি?

দ্বীপান্তরে বন্দীদশায়, হাসির খোরাক রূপে,

হারিয়ে মাতৃভাষার বুলি।

আদর্শ সামনে ছিলো তাঁরই দেশের পরিচালক

জাফর পানাহি,

আইফোনেতেই বানিয়ে সিনেমা পাওয়া তাঁর হক

খ্যাতি পরিচিতি।

লেখার ক্ষমতাই যাঁর লেখনী,

কিবা আসে যায় তাঁর কলম না হোক .....

লেখার মাধ্যম যদি হয় ফোনই।

ক্যাম্পে বুচানি থাকতেন থরহরি কাঁটা হয়ে,

অস্ট্রেলীয় কারারক্ষীদের হাঁকডাক আর

ফোন খোয়াবার ভয়ে।

সদা আতঙ্কিত, রক্ষীরা কেড়ে নেয় তাঁর

ফোন লেখনীটি যদি,

গর্ভেই যাবে মরে তবে তাঁর অসম্পূর্ণ.....

অপরিণত বইশিশুটি।

যে দেশে শরণার্থী হয়ে পান নি পাটুকু রাখার ঠাঁই,

সে দেশই দেয় এক ইরানি উদ্বাস্তুকে 

সেরা লেখকের সম্মানটাই।


সম্মান তাঁর লেখনীর, সম্মান পেলো তাঁর শব্দ,

'ভিক্টোরিয়ান প্রাইজ ফর লিটারেচার' হোলো জব্দ।

পেলেন সেই বন্দী ইরানি যুবক লেখক বুচানি,

অস্ট্রেলিয়া দেশের সর্বোচ্চ সাহিত্য সম্মানখানি।

পুরষ্কার মূল্যের ৭২,৩৯০ ডলার পুরোটাই

করে দিলেন বুচানি দান,

নির্দোষ উদ্বাস্তু বন্দীদের জন্য যাঁরা অকারণে শিবিরে

অকথ্য কষ্ট পান।


জানুয়ারী ৩১শে, ২০১৯......

পুরষ্কার ঘোষিত হওয়ার পর উল্লসিত দর্শকাসন,

ভিডিও বক্তৃতায় বেহরাউজ্ বুচানি ততক্ষণ,

জিতেছেন উদ্বেল জনতার উচ্ছসিত মন!

তাঁর কথায়....শব্দেরা রাখে আজও ক্ষমতা,

পাল্টে দেওয়ার পৃথিবীর সব অমানবিক ব্যবস্থা,

সাহিত্য পারে আনতে স্বাধীনতা,

সাহিত্যই দিতে পারে জয় আস্বাদনের বারতা।

সম্মাননায় বেহরাউজ্ বুচানির......

সম্মানিত দেশকাল ভেদে যাবতীয় কলমকার,

সম্মানিত অভিধান-শব্দকোষে জমানো শব্দভাণ্ডার,

শব্দ ব্রহ্ম শব্দ নিত্য ক্ষমতার অপরিমেয় আধার,

লেখক-লেখনী-শব্দ, কুর্নিশ লক্ষ কোটি হাজার।।


Rate this content
Log in