Read #1 book on Hinduism and enhance your understanding of ancient Indian history.
Read #1 book on Hinduism and enhance your understanding of ancient Indian history.

Debabrata Mukhopadhyay

Classics


5.0  

Debabrata Mukhopadhyay

Classics


হোক কলরব

হোক কলরব

2 mins 586 2 mins 586

শুধু যদি নিজেকে নিয়ে ভাবো

যেমন সবাই ভাবে দিনরাত্রি নির্ভাবনায়

দেখবে আগুন অবধি পথ আশ্চর্য মসৃণ

তোমাকে দেয় না পীড়া জীবনের কোনো ঋণ

বাড়ি গাড়ি নিজস্ব পুরুষ অথবা নারী

অথবা সন্তানের সাফল্য , উচ্চতা ,হাসিমুখ

এককথায় যাকে বলে সুখ

পোষা বেড়ালের মত তোমার পায়ের কাছে

নিরাপদে সুস্থিত আছে ।


তাহলে তাইঃ

বেঁচে থাকার প্রাথমিক ও অন্যতম শর্তাবলীর সূত্রে

এবং বিশুদ্ধ স্বার্থপরতায় নিজেকে বাঁচাই ।

সমুদ্রের গহীনে যেমন

পর্বত ঘুমিয়ে থাকে বহুযুগ অনাবিস্কৃত

তেমনই নিরাবেগ অক্ষত

চুপচাপ অনন্ত অবকাশ নিয়ে ঢেউ গোনা

আর ঝড়ের শব্দ শোনা ।


ঝড় হয়, আজকাল খুব ঝড় হয়

দুর্যোগের সাথে যেন পৃথিবীর ঘনিষ্ঠ প্রণয় ।

ঝড়ের শব্দ বুঝি তোমার মনোমতো নয়?

বেশ তবে জানলা দরজা বন্ধ করে রাখো

আর টিভি খুলে দেখো

হাহাকারের বায়োস্কোপ, কান্নার ডকুমেন্টারি ।

আমিও তো দেখি, আমিও

বৃষ্টি,বৃষ্টি,অবিরাম বৃষ্টি

জলস্রোতের নির্বিচার সন্ত্রাস

বন্যা,ঘোলাজলে সব গ্রাম ঢাকা,

ভেসে যেতে দেখি খেলনার মত ঘর, বাড়ি

মাথার ওপরে ওড়ে প্রসহের পাখা

প্রগলভ রাষ্ট্রনেতা প্রয়াসের প্রতিশ্রুতি দিতে থাকে

আমিও শুনি, আমিও শুনতে থাকি 

নিরাপদে ঘরে বসে তাদের মনোজ্ঞতা।


আমি রোজ দেখি মানুষের ভিড়ে

কিভাবে মানুষ হারায় ধীরে ধীরে

কিভাবে একা হতে থাকে মানুষ অনেকের মধ্যে থেকেও

নিজের জন্যে সব

ঘর, বাড়ি, ক্ষেত্রফল, আমার আমার

নিজের অর্জনে তার যত গৌরব।

পথে সন্ত্রাস, পথে ক্ষুধা, পথে অবিচার

দেখেনি সে,মুখ ঘুরিয়ে চলে যাওয়া

অভ্যাস হয়ে গেছে তার ।


এই নিরাপদে থাকা একা একা

ভয়ে ভয়ে

এই মেনে নেওয়া চাবুকের স্বেচ্ছাচার

প্রতিদিন বিক্রি করে দেওয়া নিজেদের অধিকার

প্রতিদিন ক্ষয়ে ক্ষয়ে

বাঁচতে ভুলে যাওয়া

যা পেয়েছ তাকেই অনেকটা ভেবে নেওয়া

এ ভাবেই কাটিয়ে দিতে পারো

অন্ধকারে ডুবে গিয়ে আরো

নিরাপদে ক্লিষ্ট জীবন নিয়ে মৃত্যু বরণ করো ।


কিন্তু যদি মুদ্রাদোষে

কেবলই তাকাও দুধারে, অস্থির চারপাশে

দেখো প্রতিদিন আলোড়িত প্রতিদিন

আর্তনাদে রাত্রির ঘুম ভেঙে যায়

ভাঙ্গাঘর ভেসে যায় , ভেসে যায় অবিচারে

ভাঙে কোনমতে বেঁচে থাকা

ভাঙে মানুষের মুখ

ক্রমাগত শ্রীহীন মানুষ

স্বপ্ন নেই, ত্রস্ত, নির্বাক

শান্তি নেই, অসঞ্জাত সুখ

যদি যোগ দাও দুর্যোগে বিপন্নের পাশে

লাঞ্ছিতার চোখের জলে

তৈরি কর সমুদ্রের অসন্তোষ

হত্যা, পীড়ন, রক্তপাতের ভয়াবহ আকাশে

যদি হও ঝড়ের আক্রোশ

পাথরের মত নির্বাক না হতে পেরে

সময়ের ঝুঁটি ধরে বলঃ

‘হোক কলরব’ ,

দেখবে তোমার চোখে আগুনের উত্তাপ

আগুনের বৈভব

দেখবে পৃথিবীটা বাস্তবিক বড় অগোছালো,

তোমার অনেক কাজ

অনেক অনেক কাজ

সমুদ্রের ভেতর পর্বতের ঘুম যেন ভাঙে

তোলো সে আওয়াজ ।


Rate this content
Log in

More bengali poem from Debabrata Mukhopadhyay

Similar bengali poem from Classics